Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১০ এপ্রিল, ২০২০ , ২৬ চৈত্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-০৩-২০২০

ভাগ্যের নির্মম পরিহাস, পরিবারের সচ্ছলতার জায়গায় আহাজারি

ভাগ্যের নির্মম পরিহাস, পরিবারের সচ্ছলতার জায়গায় আহাজারি

মৌলভীবাজার, ০৩ ফেব্রুয়ারি- ওমানে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চারজনের মধ্যে তিনজনের বাড়ি মৌলভীবাজারে। কুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর ও হাজীপুর ইউনিয়ন এবং কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নে তাদের বাড়ি।

তিনজন নিহতের খবর শোনার পর বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। গতকাল রোববার স্থানীয় সময় বিকেল ৫টায় রাজধানী মাস্কাট থেকে ৩০০ কিলোমিটার দূরে আদম নামক এলাকায় প্রাইভেটকার চাপায় এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

নিহত চারজনের মৌলভীবাজারের তিনজন হলেন কুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের সঞ্জরপুর গ্রামের সবুর আলী (৩৩), হাজীপুর ইউনিয়নের বিলেরপার গ্রামের লিয়াকত আলী (৩৫) ও কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের চিতলিয়া বাজারের টিলালাইন এলাকার আলম আহমদ (৩৫)।

জানা যায়, কাজ শেষে একটি বাইপাস সড়ক ধরে একসঙ্গে বাইসাইকেল চালিয়ে ফেরার পথে আদম আল বুসাঈদি নামক স্থানে পেছন থেকে দ্রুতগামী একটি প্রাইভেটকার তাদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই চারজন নিহত হন।

কুলাউড়া উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের লিয়াকত আলীর চাচা মাসুদুর রহমান জানান, বিলেরপার গ্রামের মুসলিম আলীর ছেলে লিয়াকত প্রায় চার বছর আগে ওমানে যান। তার স্ত্রী ও নয় বছর বয়সের এক সন্তান রয়েছে। সেখানে কনস্ট্রাকশনের কাজ করে সংসার চালাতেন লিয়াকত। পাসপোর্ট নবায়ন করে দুই মাস পরে দেশে আসার কথা ছিল। তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে লিয়াকত সবার ছোট। তার মৃত্যুতে পরিবারে গভীর শোক বিরাজ করছে।

কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের নিহত আলমের ছোট ভাই ওয়াসিম বলেন, আমার বড় ভাই পরিবারের সচ্ছলতা ফিরিয়ে আনার আশায় বাড়িতে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে রেখে ধার-দেনা করে ছয় মাস আগে ওমানে পাড়ি দেন। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস পরিবারের সচ্ছলতার জায়গায় আজ আহাজারির মাতম।

কুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের সঞ্জরপুর গ্রামের নিহত সবুর আলীর মামাতো ভাই কামাল খান বলেন, গ্রামের আব্দুস শহীদের ছেলে সবুর আলী ১০ বছর ধরে ওমান ছিল। দুই বছর আগে দেশে আসে একবার। কিছুদিন থাকার পর আবার ওমান পাড়ি জমায়। তার মা আছেন, বাবা নেই। চার ভাই ও চার বোনের মধ্যে সে তৃতীয়। নিহত সবুরের দুই মেয়ে এক ছেলে রয়েছে। তার গ্রামের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।

হাজীপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত বাচ্চু বলেন, আমার ইউনিয়নের লিয়াকত আলীসহ নিহত তিনজনের মরদেহ যাতে তাড়াতাড়ি দেশে ফিরে আসে সেজন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

তবে এ বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসন বা পুলিশের কাছে কোনো তথ্য নেই। পুলিশ জানিয়েছে দূতাবাস বা মন্ত্রণালয় থেকে এমন তথ্য তাদের জানানো হয়নি।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন কে / ০৩ ফেব্রুয়ারি

মৌলভীবাজার

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে