Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ৪ জুলাই, ২০২০ , ২০ আষাঢ় ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (20 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-০৩-২০২০

মাগুরায় ৮ জন শিক্ষক অনুপস্থিত, দেরিতে এসএসসি পরীক্ষা

মাগুরায় ৮ জন শিক্ষক অনুপস্থিত, দেরিতে এসএসসি পরীক্ষা

মাগুরা, ০৪ ফেব্রুয়ারি- মাগুরায় সোমবার এসএসসি পরীক্ষার প্রথমদিনে সরকারি উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে ৮ জন শিক্ষক অনুপস্থিত থাকায় নির্ধারিত সময়ের পরে অনির্ধারিত ৬ জন শিক্ষক ডেকে পরীক্ষা নিতে হয়েছে।

এ ছাড়া নির্ধারিত সময়ের ৪০ মিনিট পর দুইজন শিক্ষক পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত হয়েছেন বলেও খবর পাওয়া গেছে।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, সোমবার থেকে শুরু হওয়া এসএসসি পরীক্ষায় মাগুরা সরকারি উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে জেলার বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ১ হাজার ১২১ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। কেন্দ্রের ৩টি ভেন্যুর মধ্যে মূল কেন্দ্রে ১৩টি কক্ষের জন্য মোট ৩২ জন শিক্ষক নির্ধারিত।

সকাল ১০টায় বাংলা প্রথমপত্রের পরীক্ষা শুরু। কিন্তু দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্ধারিত শিক্ষকদের মধ্যে ৮ জন শিক্ষক অনুপস্থিত। এ অবস্থায় পরীক্ষা কমিটি তড়িঘড়ি করে বিদ্যালয়ের অনির্ধারিত ৬ জন শিক্ষক যোগাড় করে পরীক্ষা শুরু করেন।

এ ছাড়া অনুপস্থিত শিক্ষকদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাদের মধ্যে পুষ্পাঞ্জলি রায় এবং মনোয়ার হোসেন নামে দুই শিক্ষক পরীক্ষা শুরুর ৪০ মিনিট পর পরীক্ষা কেন্দ্রে যোগদান করেন।

কেন্দ্র সচিব মাগুরা সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জিয়াউল হাসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, দায়িত্বপ্রাপ্ত সব শিক্ষককে যথাসময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত হওয়ার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। কিন্তু এই কমিটির হল সুপার সুনিল কুমার ঘোষ পরীক্ষা কমিটির কাউকে না জানিয়ে মৌখিক অনুরোধের প্রেক্ষিতে আমার বিদ্যালয়ের ৮ জন শিক্ষককে ছুটি দিয়েছেন। যেটি তার এখতিয়ার বহির্ভূত। সে কারণেই অনাকাঙ্খিত ঘটনার সৃষ্টি হয়েছে। তবে একটি কক্ষে কিছু সময় পরে পরীক্ষা শুরু করা হলেও তাদের জন্য অতিরিক্ত সময় বরাদ্দ করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

তবে হল সুপার সুনীল কুমার ঘোষ বলেন, যথাসময়ে শিক্ষক না আসার কারণে রিজার্ভ শিক্ষক দিয়ে পরীক্ষা নিতে হয়েছে। এতে পরীক্ষা শুরু করতে কিছু সময় দেরি হলেও সুন্দরভাবেই শেষ হয়েছে। তবে তিনি কোনো শিক্ষককে ছুটি দেননি। নিজেদের অপরাধ ঢাকতে কেউ তার নাম বলতে পারেন বলে তিনি জানান।

বিষয়টি নিয়ে মাগুরা জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে ৮ জন শিক্ষকের অনুপস্থিতির বিষয়ে তার কিছু জানা নেই বলে জানান। তবে পরীক্ষায় দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ পাওয়া গেলে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

সূত্র: যুগান্তর 

আর/০৮:১৪/০৪ ফেব্রুয়ারি

মাগুরা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে