Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ৩১ মে, ২০২০ , ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (15 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-০৯-২০২০

কাভার্ডভ্যান কেড়ে নিল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের প্রাণ

কাভার্ডভ্যান কেড়ে নিল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের প্রাণ

গাজীপুর, ৯ ফেব্রুয়ারি- স্বপ্ন ছিল লেখাপড়া শেষ করে সরকারি কর্মকর্তা হওয়ার। মাত্র আর এক বছর পরেই বিসিএস পরীক্ষায় বসার কথা ছিল তার। কিন্তু পলাশের সে স্বপ্ন গতকাল শনিবার দুপুরে থেমে গেছে মহাসড়কে। দ্রুতগামি একটি কাভার্ডভ্যান গাজীপুর উপজেলার হোতাপাড়া এলাকায় পেছন থেকে মোটরসাইকেলসহ চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

নিহত আনিসুর রহমান পলাশ (২৪) ঢাকার উত্তরা ইউনিভার্সিটির বিবিএর চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্র এবং গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের গলদাপাড়া গ্রামের প্রবাসী আব্দুস সাত্তারের ছেলে। দুই বোন এক ভাইয়ের মধ্যে পলাশ ছিল বড়। তার মর্মান্তিক মৃত্যুতে পরিবার ও এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, পলাশ উত্তরায় তার মামার বাসায় থেকে লেখাপড়া করতেন। পাশাপাশি ওই এলাকায় ঢাকা ওয়াসায় মাষ্টাররোলে চাকরি করতেন। শুক্রবার বন্ধ থাকায় মায়ের সঙ্গে দেখা করতে বৃহস্পতিবার বাড়ি এসেছিলেন।

শনিবার দুপুরে মোটরসাইকেল যোগে ঢাকায় ফিরছিলেন পলাশ। ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের হোতাপাড়া এলাকায় পৌঁছালে একটি কাভার্ডভ্যান পেছন থেকে তার মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় পলাশ মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

খবর পেয়ে পরে হাইওয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে নাওজোর হাইওয়ে থানার সালনা ফাঁড়িতে নিয়ে যায়। ছেলের মৃত্যুর খবর শুনে শোকে বার বার মুর্ছা যাচ্ছেন মা রাশিদা বেগম। হতবিহবল হয়ে পড়েছেন স্কুল পড়ুয়া ছোট দুইবোন পলি ও মিলি। পালাশের মৃত্যুতে পুরো গ্রামে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

চাচাত ভাই আরিফুল ইসলাম জানান, সরকারি বড় কর্মকর্তা হওয়ার স্বপ্ন ছিল পলাশের। বলত এইতো আর এক বছর। বিবিএ চূড়ান্ত পরীক্ষা শেষ করেই বিসিএস পরীক্ষার প্রস্তুতি শুরু করবে। হাসিখুশি ছেলেটি বাড়ি থেকে শনিবার দুপুরে বের হওয়ার পর এক ঘণ্টার মধ্যে লাশ হবে, ওর স্বপ্ন এভাবে মহাসড়কে থেমে যাবে আমরা বিশ্বাস করতে পারছি না।

আরিফুল আরো জানায়, পলাশের বাবা কৃষক ছিলেন। ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য তিনি ৩-৪ বছর আগে ইরাক যান। তাকে একমাত্র ছেলের মৃত্যুর খবর এখনো জানানো হয়নি।

এসআই চাঁন মিয়া জানান, দুর্ঘটনার পর কাভার্ডভ্যানটি পালিয়ে গেছে। আমরা চালককে গ্রেপ্তার ও কাভার্ডভ্যানটি আটকের চেষ্টা করছি। পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

সূত্র: কালের কন্ঠ

আর/০৮:১৪/০৯ ফেব্রুয়ারি

গাজীপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে