Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-১১-২০২০

‘আদালত কেন্দ্রিক বিচার ব্যবস্থা জটিল ও ব্যয় সাপেক্ষ’

‘আদালত কেন্দ্রিক বিচার ব্যবস্থা জটিল ও ব্যয় সাপেক্ষ’

ঢাকা, ১২ ফেব্রুয়ারি - দেশের মামলাজট নিরসনে মেডিয়েশন তথা বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি পদ্ধতির ওপর জোর দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিরা। এছাড়া আদালত কেন্দ্রিক বিচার ব্যবস্থা জটিল এবং প্রচুর সময় ও ব্যয় সাপেক্ষ বলেও মন্তব্য করেন তারা।

মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহিদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে ‘বিরোধ নিষ্পত্তিতে মেডিয়েশনের ভূমিকা’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আপিল বিভাগের বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলী বলেন, মেডিয়েশন বা মধ্যস্থতা প্রক্রিয়ায় কোনো বিরোধ নিষ্পত্তি হলে সেখানেই বিরোধের সমাপ্তি ঘটে। কিন্তু আদালত কেন্দ্রিক বিচার ব্যবস্থায় নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে আপিল বিষয়ক পর্যায় থাকে। যার ফলে বিরোধ নিষ্পত্তিতে দীর্ঘসূত্রিতা তৈরি হয়।

তিনি আরও বলেন, দেশে বর্তমানে ৩৫ লাখেরও বেশি মামলা বিচারাধীন। মামলার এমন প্রেক্ষাপটে বলতেই হয়, ‘জাস্টিস ইস বাউন্ড টু ডিলেইড’। তাই এ ক্ষেত্রে বলা যায়, মেডিয়েশন বা মধ্যস্থতায় বিরোধ নিষ্পত্তি হতে পারে এক অনন্য মাধ্যম।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল। তিনি বলেন, সংবিধানের অনুচ্ছেদ ২৭ মোতাবেক সকল নাগরিক আইনের সমান আশ্রয় লাভের অধিকারী, যা নাগরিকের অন্যতম মৌলিক অধিকার। কিন্তু বাস্তব সত্য হলো- এ দেশের বেশিরভাগ নাগরিক আইনের সমান আশ্রয় লাভের অধিকার থেকে বঞ্চিত। কেননা আদালত কেন্দ্রিক আমাদের বিচার ব্যবস্থা এতো জটিল এবং প্রচুর সময় ও অর্থ সাপেক্ষ যে সাধারণ মানুষ আদালতের দরজায় পৌঁছাতেই পারে না।

তিনি বলেন, সুতরাং এটা বলার অপেক্ষা রাখে না, বর্তমানে আমাদের যে আদালত কেন্দ্রিক বিচারব্যবস্থা তা শুধুমাত্র হাতেগোনা কিছু সুবিধাভোগী শ্রেণির এবং আর্থিকভাবে সামর্থ্যবান জনগণের জন্য। এমনকি ৩০ লক্ষাধিক মামলায় ভারাক্রান্ত আদালত থেকে সেই হাতেগোনা মানুষও সময়মতো বিচার পাচ্ছেন না। এমন একটি অবস্থায় আমি মনে করি, বিরোধ নিষ্পত্তিতে মেডিয়েশন বা মধ্যস্থতা পদ্ধতি সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ ও উত্তম পদ্ধতি হিসেবে জনগণের আইনের সমান অধিকার প্রাপ্তিতে মুখ্য ভূমিকা রাখতে পারে।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী পঙ্কজ কুমার কুণ্ডের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল মেডিয়েশন সোসাইটির (বিমস) চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সমরেন্দ্র নাথ গোস্বামী। বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল মেডিয়েশন সোসাইটির (বিমস) এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১২ ফেব্রুয়ারি

আইন-আদালত

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে