Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২৫ মে, ২০২০ , ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (15 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-১২-২০২০

মুজিববর্ষে ভিক্ষা ছেড়ে ব্যবসা শুরু করলেন তারা

মুজিববর্ষে ভিক্ষা ছেড়ে ব্যবসা শুরু করলেন তারা

পাবনা, ১৩ ফেব্রুয়ারি - ভিক্ষা ছেড়ে ব্যবসায় নিযুক্ত হলেন পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার ২২ ভিক্ষুক। এসব ভিক্ষুককে ২১টি গাভি ও মুদি দোকানের মালামাল বিতরণ করে স্বাবলম্বী হতে সহায়তা করেছে সাঁথিয়া উপজেলা প্রশাসন।

বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সাঁথিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে ভিক্ষুকদের মাঝে গবাদিপশু ও দোকান ঘরের সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পাবনা জেলা প্রশাসক (ডিসি) কবীর মাহমুদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এসএম জামাল আহমেদ।

ভিক্ষা ছেড়ে পুনর্বাসিত হওয়া ব্যক্তিরা হলেন সাবের আলী, আব্দুল মজিদ, লজিরন খাতুন, ময়না খাতুন, আয়েশা খাতুন, আছের আলী, আব্দুল লতিফ, সাহেরা খাতুন, বুলু খাতুন, খোদেজা খাতুন, শুকুরন নেছা, মুনসুর আলী, আব্দুস সালাম, আব্দুর রহমান, মোতালেব হোসেন, রেজাউল করিম, জাহেদা খাতুন, জহুরা খাতুন, হাফিজা খাতুন, নেকবার মোল্লা, ওমর আলী। এদের হাতে একটি করে গাভি ও মুদি দোকানের প্রয়োজনীয় সামগ্রী তুলে দেয়া হয়।

গাভি পাওয়া ভিক্ষুক লজিরন খাতুন ও সাহেরা খাতুন বলেন, বাবারে আমরা এতদিন ভিক্ষা করতাম। এখন গরু লালন-পালন করে আয় দিয়ে সংসার চালাব।

দোকান ঘরের সামগ্রী পাওয়া হাফিজা খাতুন বলেন, অসুস্থ স্বামী ঘরে পড়ে আছে। এতদিন ভিক্ষা করে সংসার চালাতাম। এখন দোকানের আয় দিয়ে সংসার চালাব। আর ভিক্ষা করতে হবে না। আমরা সাঁথিয়া ইউএনওর প্রতি কৃতজ্ঞ।

সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এসএম জামাল আহমেদ বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভিক্ষুক পুনর্বাসনের এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এটি চলমান থাকবে। পুনর্বাসনকাজ নিয়মিত মনিটরিং করা হবে। তাদের সুবিধা-অসুবিধা দেখা হবে। এজন্য সংশ্লিষ্ট এলাকায় কর্মকর্তা নিয়োজিত থাকবেন। মুজিববর্ষে এসব ভিক্ষুকের স্বাভাবিক জীবন নিশ্চিত করা হলো।

পাবনার জেলা প্রশাসক (ডিসি) কবীর মাহমুদ বলেন, এসব ভিক্ষুকের হাত যেন সত্যিকার অর্থে কর্মীর হাতিয়ার হতে পারে সেজন্য সবাইকে গাভি দেয়া হলো। গাভির দামের সমপরিমাণ নগদ টাকা দিলে দ্রুত ব্যয় করে নিঃস্ব হয়ে যেতেন তারা। গাভি এবং দোকানের মালামাল দেয়ায় তাদের নিয়মিত আয়ের উৎস হবে। সমাজের বোঝা না হয়ে দেশের সম্পদ হবেন তারা। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে তার জন্মশতবার্ষিকীতে একটি মহতী কাজ বাস্তবায়ন করা হলো।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাঁথিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল মাহমুদ দেলোয়ার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সোহেল রানা খোকন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফয়সাল রহমান ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল জাবীর।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১৩ ফেব্রুয়ারি

পাবনা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে