Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ৩ জুন, ২০২০ , ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-০৪-২০২০

অনলাইনের রেজিস্ট্রেশন ১৭ মার্চের পর : তথ্যমন্ত্রী

অনলাইনের রেজিস্ট্রেশন ১৭ মার্চের পর : তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ০৪ মার্চ - আগামী ১৭ মার্চের পর থেকে সাড়ে তিন হাজার অনলাইন নিউজ পোর্টালের রেজিস্ট্রেশন দেয়ার চেষ্টা করা হবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

বুধবার (৪ মার্চ) জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটের সাবেক মহাপরিচালক শাহ আলমগীরের ওপর লেখা ‘স্বপ্নের সারথি শাহ আলমগীর’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, অনলাইন নিউজ পোর্টালের রেজিস্ট্রেশনের জন্য দরখাস্ত আহ্বান করা হয়েছিল। সেখানে সাড়ে তিন হাজারের বেশি আবেদন জমা পড়ে। আইপি টিভিকেও আমরা রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনার কথা বলেছি। এখানে ৫০০’র বেশি আবেদন পড়েছে। আমরা অনেক আগে থেকেই রেজিস্ট্রেশন দেয়ার চেষ্টা করছিলাম, কিন্তু পারিনি। কারণ তদন্ত প্রতিবেদন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাইনি। বারবার তাগাদা দেয়ার পর কিছু প্রতিবেদন আমরা পেয়েছি।

তিনি বলেন, একটি সংস্থা থেকে এক হাজারের বেশি পেয়েছি আর একটি সংস্থা থেকে একশ’র কম পেয়েছি। সুতরাং একটি সংস্থার রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে তো দেয়া যায় না, সেজন্য আরেকটু সময় অপেক্ষা করতে হবে। দেশে কিছু প্রতিষ্ঠিত অনলাইন আছে। সেগুলো বাদ দিয়ে শুধু যাদের তদন্ত রিপোর্ট পেয়েছি তাদের দিতে চাচ্ছি না।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, প্রতিষ্ঠিত অনলাইনগুলোকে প্রথম ধাপেই দিতে চাই। তাদের রিপোর্ট যেন দ্রুত আসে, সে জন্য অপেক্ষা করছি। ১৭ মার্চের পর থেকে আমরা রেজিস্ট্রেশন দেয়ার চেষ্টা করব। তবে নিশ্চিত করে বলতে পারছি না। রেজিস্ট্রেশনের আওতায় এলে মিডিয়ায় শৃঙ্খলা আসবে।

তিনি বলেন, সংবাদ প্রকাশের ক্ষেত্রে সবার আগে সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশের প্রতিযোগিতা আছে। সেটি করতে গিয়ে অনেক সময় দেখা যায় সংবাদের গুণগতমান নষ্ট হয়। অনলাইনে এটা বেশি হয়। কার আগে কে প্রকাশ করবে সেটা নিয়ে প্রতিযোগিতা। এটি করতে অনেক সময় বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ হয় না। অনেক সময় সংবাদ ভুল হয়।

মন্ত্রী বলেন, আমরা প্রেস ইনস্টিটিউট ও প্রেস কাউন্সিলকে বলেছি শুধু ঢাকাকেন্দ্রিক নয় ঢাকার বাইরে বড় বড় শহরে কর্মশালা করার কথা। অনেক ক্ষেত্রে একটা যেনতেন অনলাইনের সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে সাংবাদিকতার আড়ালে অন্য কিছু করে কিছু দুষ্কৃতকারী। এগুলো নিয়ে আমাদের কাজ করার প্রয়োজন আছে বলে মনে করি।

বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটের সাবেক মহাপরিচালক শাহ আলমগীরের কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, মানুষ বাড়ছে কিন্তু ভালো মানুষের সংখ্যা কমছে। মানুষ প্রচণ্ডভাবে আত্মকেন্দ্রিক হচ্ছে। নিজেকে নিয়ে ভাবে। সব মানুষের মাঝে এক অদ্ভুত প্রতিযোগিতা সেটা হচ্ছে কাকে ছেড়ে কে উপরে উঠবে। এ পরিস্থিতির মধ্যে ভালো মানুষ খুবই প্রয়োজন।

হাছান মাহমুদ বলেন, আলমগীরের কাছ থেকে মনে করি আমাদের অনেক কিছু শেখার আছে। তিনি নির্লোভ, নির্মোহ এবং প্রচারবিমুখ একজন মানুষ ছিলেন। সহকর্মীদের জন্য ছিলেন সহায়ক। সমাজে তার মতো মানুষের অত্যন্ত প্রয়োজন আছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, সিনিয়র সাংবাদিক মনজুরুল আহসান বুলবুল, সাংবাদিক ইশতিয়াক রেজা প্রমুখ।

এন এইচ, ০৪ মার্চ

মিডিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে