Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২৯ মে, ২০২০ , ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-১২-২০২০

‘সরি, নট হ্যান্ডশেক নাউ’

‘সরি, নট হ্যান্ডশেক নাউ’

ঢাকা, ১২ মার্চ - ঘরে-বাইরে কারও সঙ্গে দেখা হলে সালাম, নমস্কার, হাই-হ্যালো করা প্রচলিত রীতি অনুসারে এক ধরনের সৌজন্যতা। একইভাবে সৌজন্যতা দেখিয়ে হাত সামনে এগিয়ে দিয়ে করমর্দন (হ্যান্ডশেক) করা ধনী-গরিব নির্বিশেষে সবারই প্রচলিত অভ্যাস। কিন্তু বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কায় রোগতত্ত্ব ও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা আপাতত করমর্দন না করার পরামর্শ দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুর আনুমানিক সাড়ে ১২টা। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে উপস্থিত হয়েছেন সামিট গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান লতিফ খানসহ অন্যান্য পরিচালকবৃন্দ। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সামিট গ্রুপের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে পাঁচটি থার্মাল স্ক্যানার মেশিন শুভেচ্ছা উপহার দেয়ার জন্য এসেছেন তারা।

সবাই অপেক্ষা করছেন মন্ত্রীর জন্য। কিছুক্ষণ পর স্বাস্থ্যমন্ত্রী সভা কক্ষে প্রবেশ করেন। মন্ত্রী কক্ষে ঢুকে বসার জন্য আসনের সামনে যেতেই পাশে বসে থাকা সামিট গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান লতিফ খান সালাম বিনিময় করে করমর্দনের জন্য হাত এগিয়ে দেন। এ সময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মুচকি হেসে বলেন, ‘সরি, নট হ্যান্ডশেক নাউ।’ তিনিও কিছুটা বিব্রত হয়ে মুচকি হেসে হাত সরিয়ে নেন। করোনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় সমাজের সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে করমর্দন নিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হচ্ছে।

সম্প্রতি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি সম্পর্কে ব্যাখ্যা করতে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য মহাপরিচালক তার বক্তৃতায় এ ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে নিজেদের বাঁচাতে দেশের মানুষকে আপাতত করমর্দন বন্ধ রাখার পরামর্শ দেন। অনুষ্ঠান শেষে তিনি পরিচিত এক গণমাধ্যমকর্মীর দিকে হাত এগিয়ে দিয়ে করমর্দন করতে গেলে ওই ব্যক্তি তাকে হ্যান্ডশেক না করার পরামর্শের কথা স্মরণ করিয়ে দেন।

এ সময় তিনি বলেন, দীর্ঘদিনের অভ্যাসবশত হাত এগিয়ে দিয়েছেন। মানুষ মনের অজান্তেই কাউকে দেখলে করমর্দনের জন্য হাত এগিয়ে দেয়।এ ধরনের ঘটনা পরিচিত আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধুবান্ধব সবার সঙ্গে ঘটছে।

থার্মাল স্ক্যানার মেশিন হস্তান্তর অনুষ্ঠানে সামিট গ্রুপের পক্ষ থেকে বক্তব্য প্রদান করেন গ্রুপের চেয়ারম্যানের মেয়ে (পরিচালক) আজিজা আজিজ খান। বক্তব্যকালে তিনি বলেন, বর্তমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বিভিন্ন বন্দরে যাত্রীদের জ্বর মাপার জন্য থার্মাল স্ক্যানার মেশিন শুভেচ্ছা উপহার দিতে পেরে তারা গর্বিত।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বর্তমান পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় সহায়তার জন্য সামিট গ্রুপের মতো অন্যান্য বিত্তশালীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১২ মার্চ

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে