Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২৬ মে, ২০২০ , ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-১৪-২০২০

দুই পুলিশকে চড় মেরে যুব মহিলা লীগ নেত্রী আটক

দুই পুলিশকে চড় মেরে যুব মহিলা লীগ নেত্রী আটক

গাজীপুর, ১৫ মার্চ- উল্টোপথে গাড়ি চালাতে বাধা দেয়ায় গাজীপুরে এবার ট্রাফিক পুলিশের দুই কনস্টেবলকে চড়-থাপ্পড় মারলেন যুব মহিলা লীগ নেত্রী ও সংরক্ষিত নারী আসনের কাউন্সিলর রুহুননেছা রুনা (৪০)। অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজের পর পুলিশ সদস্যের ইউনিফর্মের শার্টের বোতাম ছিঁড়ে ফেলেন তিনি। শনিবার (১৪ মার্চ) দুপুরে মহানগরীর চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় অবৈধভাবে ইউন্টার্ন নেওয়াকে কেন্দ্র করে বাগ্‌বিতণ্ডার একপর্যায়ে পুলিশ সদস্যদের গায়ে হাত তোলেন তিনি। এ ঘটনায় পুলিশ রুহুননেছা রুনা আটক করেছে।

তিনি গাজীপুর মহানগর যুব মহিলা লীগের আহ্বায়ক ও গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সংরক্ষিত নারী আসনের ৩১, ৩২ ও ৩৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, চান্দনা চৌরাস্তা মোড়ে ইউন্টার্ন ও উল্টো পথে গাড়ি চালানো বন্ধে রশি টানিয়ে রাখা ছিল। কাউন্সিলর রুহুননেছা ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে রশি সরিয়ে ইউন্টার্ন নেওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময়ে সেখানে কর্তব্যরত দুই ট্রাফিক পুলিশ সদস্য তাকে থামান। রুহুননেছা রুনা নিজেকে কাউন্সিলর হিসাবে পরিচয় দিলেও পুলিশ তাকে ইউন্টার্ন নিয়ে উল্টোপথে গাড়ি নিতে বাধা দেন।

পরে উভয়ের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে রুহুননেছা উত্তেজিত হয়ে ওই ট্রাফিক পুলিশের গালে চড় দিয়ে বসেন এবং পুলিশ সদস্যের ইউনিফর্মের শার্টের বোতাম ছিঁড়ে ফেলেন। সেখানে থাকা ট্রাফিক পুলিশ বক্সে থেকে আরও পুলিশ এসে তাকে আটক করে বসিয়ে রেখে বাসন থানা-পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ দুপুর আড়াইটার দিকে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যান।

কাউন্সিলর রুহুননেছা বলেন, চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় অনেকেই উল্টোপথে যাতায়াত করে থাকে। একটি অনুষ্ঠানে যাওয়ার জন্য তাদেরকে নিজের পরিচয় দিয়ে অনুরোধ করলেও তারা কথা রাখেনি। একপর্যায়ে পুলিশ এমন আচরণ করছিল যেন আমার উপড়ে এসে পড়বে। তখন নিজেকে রক্ষা করতে চর দিয়েছি।

বাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম কাউছার চৌধুরী এ প্রতিবেদককে জানান, রুহুননেছা রুনা পুলিশকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আমরা পুলিশ পালি, দুই টাকার পুলিশ একজন নির্বাচিত কাউন্সিলরকে বাধা দেয়’। দুই পুলিশ সদস্যকে মারধরের অভিযোগে ওই নেত্রীকে আটক করে থানা হেফাজতে রাখা রয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) ট্রাফিক বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার মাজহারুল ইসলাম এ প্রতিবেদককে জানান, যুব মহিলা লীগের নেত্রী রুহুননেছা রুনা উল্টা পথে গাড়ি চালাচ্ছিল। এ সময় কর্তব্যরত অবস্থায় দুই কনস্টেবল তাকে বাধা দেয়। এতে তিনি গাড়ি থেকে নেমে পুলিশ সদস্যদের চড়-থাপ্পড় মারেন এবং অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। পরে পুলিশ তাকে আটক করে বাসন থানায় সোপর্দ করে।

সূত্র: পূর্বপশ্চিমবিডি

আর/০৮:১৪/১৫ মার্চ

গাজীপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে