Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০ , ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-২৬-২০২০

হত্যার পর ভাইয়ের লাশ হাসপাতালে ফেলে পালালেন চার ভাই

হত্যার পর ভাইয়ের লাশ হাসপাতালে ফেলে পালালেন চার ভাই

কক্সবাজার, ২৬ মার্চ - বিয়ের ৪ মাসের মাথায় আপন ৪ ভাইয়ের হাতে খুন হয়েছেন আরেক ভাই। কক্সবাজারের রামু উপজেলার কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের মনিরঝিল সোনাইছড়ি এলাকায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে জানা গেছে। পুলিশ এ ঘটনায় নিহতের ভাই আবদুন্নবীকে আটক করেছে।

নিহত কৃষক গোলাম কাদের (৩২) কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের পশ্চিম মনিরঝিল পশ্চিম পাড়ার মৃত আবদুল হাসিমের ছেলে। গত ১৯ নভেম্বর গোলাম কাদের বিয়ে করেছিলেন।

রামু থানার ওসি মো. আবুল খায়ের জানিয়েছেন, এ হত্যার ঘটনায় নিহতের আপন চার ভাই ওসমান গণি, আবদুর রহিম, আবদুর রহমান ও আবদুন্নবী জড়িত বলে প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে। পুলিশ কক্সবাজার সদর হাসপাতাল থেকে নিহত গোলাম কাদেরের মরদেহ উদ্ধার করে। পরে ওই হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করার পর মরদেহ বুধবার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত পলাতক ভাইদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন ওসি।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) দুপুর ১২টা-১টার দিকে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে আপন চার ভাই মিলে গোলাম কাদেরের উপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় গোলাম কাদের গুরুতর আহত হন। মুমূর্ষু গোলাম কাদেরকে হামলাকারী চার ভাই মিলে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। হাসপাতালে গোলাম কাদেরের মৃত্যু হলে তারা পালিয়ে যান।

কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার জহির উদ্দিন জানান, জমি সংক্রান্ত বিরোধে আপন ভাইদের হাতে খুন হয়েছেন কৃষক গোলাম কাদের। মৃত আবদুল হাসিমের ছয় ছেলের মধ্যে চতুর্থ ছেলে কাদের। স্থানীয় কিছু দুষ্কৃতকারীর যোগসাজসে বড় ভাই সৌদি প্রবাসী ওসমান গণি, মেঝ ভাই আবদুর রহমান, ছোট দুই ভাই আবদুর রহিম ও আবদুন্নবী এ হত্যাকাণ্ড ঘটায়।

তিনি আরো জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিহত গোলাম কাদেরের ভাই আবদুন্নবী পার্শ্ববর্তী রাজারকুল ইউনিয়নের পূর্ব রাজারকুল গ্রামে ঘোরাঘুরি করায় এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে, আবদুন্নবীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে গ্রামবাসী। পুলিশের কাছে আবদুন্নবী স্বীকারোক্তি দিলে বুধবার সকালে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল থেকে নিহত গোলাম কাদেরের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত কাদেরের আরেক ভাই মো. আবদুল্লাহ এ ঘটনায় জড়িত না। তিনিই মরদেহ দাফনের যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করেছেন।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ২৬ মার্চ

কক্সবাজার

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে