Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ৩১ মে, ২০২০ , ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-২৭-২০২০

বরগুনায় ওসির কক্ষে ঝুলন্ত লাশ নিয়ে যা বললেন ব্যারিস্টার সুমন

বরগুনায় ওসির কক্ষে ঝুলন্ত লাশ নিয়ে যা বললেন ব্যারিস্টার সুমন

ঢাকা, ২৮ মার্চ - বরগুনার আমতলী থানা পুলিশের ওসির (তদন্ত) কক্ষ থেকে মোহাম্মদ সানু হাওলাদার নামের এক যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় মুখ খুলেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

শুক্রবার (২৭ মার্চ) ফেসবুক লাইভে এসে এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ২৪ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছে। করোনাভাইরাস নিয়ে যখন সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। জীবন বাজি রেখে মাঠে কাজ করছেন পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা। এর মধ্যে একজন ওসি টাকার জন্য কী ঘটনা ঘটিয়েছেন। টাকার জন্য দেশটাও বিক্রি করে দিতে পারবেন ওসি।’

তিনি পুলিশের মহাপরিদর্শকের (আইজিপি) উদ্দেশ্যে বলেন, আপনি খুব অমায়িক মানুষ। নিশ্চয় আপনি এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবেন।

তিনি লাইভে বলেন, ‘আমি সারাজীবন শুনে আসছি মৃত্যুর ভয় নাকি অমানুষকেও কিছু সময়ের জন্য মানুষ করে দেয়। কিন্তু আমার কাছে আজ মনে হয়েছে যে বরগুনার আমতলী থানার ঘটনা যেখানে শানু হাওলাদার নামের একজনকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে। আমি তার ঝুলন্ত লাশ দেখলাম ফেসবুকে। দেখে মনে হলো, এই সারা পৃথিবী করোনাসহ মৃত্যুর ভয় অমানুষকে মানুষ বানায় দেয়।’

সমাজসেবক এই আইনজীবী বলেন, ‘পুলিশের কিছু সদস্য আছে, তারা কি মৃত্যুর ভয়ের মুখোমুখি হয়েও কি মানুষ হবে না? এই যে বরগুনা থানার ওসির বিরুদ্ধে অভিযোগ, শানু হাওলাদারের ফ্যামিলির কাছে তিন লাখ টাকা চেয়েছিলেন। কিন্তু তার পরিবার টাকা দিতে পারেনি। মাত্র ১০ হাজার টাকা দিয়েছে এ জন্য আপনারা পিটিয়ে মেরে ফেলছেন। আমার কাছে লজ্জা লাগে। আমার কাছে মাঝেমধ্যে মনে হয়, এসব মানুষের কারণে করোনা আমাদের কাউকে মাফ করবে না। আবার এটাও মনে হয়, যারা এসব অপরাধ করে তাদের যদি করোনা নিয়েও যায় সঙ্গে যদি আমাকেও নেয় আমিও চলে যেতে চাই। তাও যদি বাংলাদেশটা মুক্তি পায়।’

তিনি বলেন, আমার মনে হয়, নেতাদের কন্ট্রিবিউশন ছাড়া একজন ওসি এত শক্তি পায় না। আমার বিশ্বাস বরগুনার নেতাদের যারা আপনাদেরও এখানে কন্ট্রিবিউশন আছে। আপনারা কোনো না কোনোভাবে এ ওসির কাছ থেকে সুবিধা পাচ্ছেন। আমি আমার এলাকাতেও গিয়ে দেখেছি, রাজনৈতিক নেতাদের যদি ছত্রচ্ছায়া না থাকে তাহলে একজন ওসি এতটা সাহস পায় না।

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘আপনি হত্যা, নির্যাতন বাদ দেন একটা মানুষ ওসির রুমে আত্মহত্যা করার সুযোগ কেমনে পায়। আমার দুঃখ লাগে, আজকে লকডাউনে বাসায় বসে আছি। নইলে হাইকোর্ট, সুপ্রিম কোর্ট সব জায়গায় এটা নিয়ে যেতাম। আমি মনে করি, সরকার কুডিগ্রামের ডিসির বিরুদ্ধে যেভাবে অ্যাকশন নিয়েছেন শাস্তি দিয়েছেন, এই ওসিকেও সামান্যতম ছাড়া দেবেন না। সারাদেশে পুলিশ বাহিনী যেখানে মানুষকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে, সেখানে এরকম ওসির কারণে পুলিশের বিষয়ে মানুশের শ্রদ্ধা কমে যায়।’

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর পদ থেকে স্বেচ্ছায় পদত্যাগকারী সুমন আরও বলেন, ‘আজ পুলিশ সদস্যরা নিজেদের সবকিছুর বিনিময়ে ভাইরাসের মুখোমুখি হয়েছেন। আর আপনি ওসি সামান্য কয়টা টাকার জন্য এই কাজটা করলেন। পুরো বাংলাদেশকে বেচে দেয়ার জন্য আপনার এক মিনিটের ব্যাপারও না।’

লাইভে সর্বশেষে তিনি বলেন, ‘আমি বরগুনাবাসীর উদ্দেশে বলছি, আপনারা কী শুরু করছেন। কয়দিন আগে রিফাতকে সেখানে সবার সামনে কুপিয়ে মারা হলো। আপনারা তো আর সবাই খারাপ মানুষ না আপনারা দাঁড়ান। দাঁড়িয়ে কথা বলেন। আমি এই আইজিপির (পুলিশের মহাপরিদর্শক) অনেক সুনাম শুনেছি। এই পরিস্থিতি শেষ হলে যেন এটা নিয়ে আবার কোর্টে না যেতে হয়। আমার বিশ্বাস এর মধ্যেই আপনারা ব্যবস্থা নেবেন।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ২৮ মার্চ

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে