Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ৪ জুন, ২০২০ , ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-২৯-২০২০

শিক্ষার্থীদের ঘরে বসে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান মন্ত্রীর

শিক্ষার্থীদের ঘরে বসে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান মন্ত্রীর

ঢাকা, ২৯ মার্চ- করোনাভাইরাস পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামী ৯ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এ সময়টাতে ঘরে বসে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

রোববার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এক সভায় মন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, নোবেল করোনাভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করায় গোটা বিশ্ব এখন প্রায় অচল। করোনার ভয়াবহ প্রাদুর্ভাব থেকে নিজেকে রক্ষা করতে আমাদের উচিত সচেতন হওয়া, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও সমাজিক দূরত্ব বজায় রাখা।

তিনি শিক্ষার্থীদের ঘরে বসে সংসদ টেলিভিশনের মাধ্যমে প্রচারিত ‘আমার ঘরে আমার স্কুল ’শিরোনামে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ক্লাস সমূহ মনোযোগ দিয়ে দেখার ও আত্মস্থ করার আহ্বান জানান।

ড. দীপু মনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার ফলে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম যাতে ব্যাহত না হয় সেজন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় আজ থেকে সংসদ টেলিভিশনের মাধ্যমে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য দক্ষ শ্রেণি শিক্ষকদের ক্লাসসমূহ ভিডিও ধারণ করে সম্প্রচার করা হচ্ছে। 

এ সময় শিক্ষা কার্যক্রমের সঙ্গে জড়িত সব শিক্ষক, সংসদ টেলিভিশনের কলাকৌশলী এটুআই-কে ধন্যবাদ জানান তিনি। 

সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহাবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মুনশী শাহাবুদ্দীন আহমেদ, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক সৈয়দ গোলাম ফারুক প্রমুখ। 

প্রত্যেক শিক্ষার্থী বাসায় বসেই টিভির মাধ্যমে ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে পারবে। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এ পাঠদান কার্যক্রম চলবে। বিকেল ২টা থেকে ৫টা পর্যন্ত সেই ক্লাবসমূহ আবার পুনঃপ্রচার করা হবে। 

এছাড়া ক্লাসসমূহ ‘আমার ঘরে আমার স্কুল’ ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেলে পাওয়া যাবে। যদি কোনো শিক্ষার্থী কোনো ক্লাস দেখতে না পারেন তাহলে সে ওই পেজ ও চ্যানেলের মাধ্যমে ক্লাসটি দেখতে পারবেন। 

শিক্ষক ক্লাস শেষে পাঠদানকৃত বিষয়ের উপরে বাড়ির কাজ দেবে। প্রত্যেকটি বিষয়ের জন্য শিক্ষার্থীরা আলাদা খাতায় তারিখ অনুযায়ী বাড়ির কাজ সম্পন্ন করবে এবং স্কুল খোলার পর সংশ্লিষ্ট শিক্ষকের কাছে জমা দিবে। বাড়ির কাজের উপর প্রাপ্ত নম্বর ধারাবাহিক মূল্যায়নের অংশ হিসেবে বিবেচিত হবে।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

আর/০৮:১৪/২৯ মার্চ

শিক্ষা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে