Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ৪ জুন, ২০২০ , ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৪-০১-২০২০

ক্লিনিকে ডাক্তার নেই, ফিরে যাচ্ছেন রোগীরা

ক্লিনিকে ডাক্তার নেই, ফিরে যাচ্ছেন রোগীরা

গাজীপুর, ০১ এপ্রিল- গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় প্রায় অর্ধশত ক্লিনিক রয়েছে। কিন্ত করোনাভাইরাস নিয়ে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে সেগুলোতে আসছেন না ডাক্তার। ফলে রোগীরা যেমন চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন, তেমনি বিপাকে পড়েছেন এসব বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

কালিয়াকৈর এলাকার শুভেচ্ছা ক্লিনিক, রাবেয়া-সখিনা ক্লিনিক, সফিপুর এলাকার তানহা হেলথ কেয়ার, মর্ডান হাসপাতালসহ ক্লিনিকগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রতিদিন ঢাকা থেকে বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকরা এখানে আসতেন রোগী দেখতে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে তাদের কেউই আসছেন না। এতে রোগীরা ফিরে যাচ্ছেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নানাভাবে চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন চিকিৎসক আনতে।

কালিয়াকৈর সাহেববাজার এলাকার বাসিন্দা  আব্দুল মজিদ মিয়া বলেন, ’আমার এক আত্মীয়কে সিজার করানোর জন্য আজহার হালিমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কোন চিকিৎসক না থাকায় পরে শুভেচ্ছা ক্লিনিকে নেয়া হয়। কিন্তু সেখানেও রোগী ভর্তি করা হয়নি। সবশেষে রোগীকে  টাঙ্গাইলের মির্জাপুর  কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।’

কালিয়াকৈর শুভেচ্ছা ক্লিনিক এন্ড ডায়গনষ্টিক সেন্টারের পরিচালক কাকন বলেন, ‘করোনার কারণে ডাক্তারদের ফোন করে হাসপাতালে আনা যাচ্ছেনা। ডাক্তার না আসলে আমরা রোগীগের চিকিৎসা দিব কিভাবে। এতে আমাদের আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে।’

রাবেয়া সখিনা ক্লিনিকের ম্যানেজার দেলোয়ার হোসেন সুজন বলেন, ’ডাক্তার আসেনা ভাই। রোগীরা ফিরে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিলেও ডাক্তারদের সাড়া পাচ্ছি না।‘

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. প্রবীর কুমার সরকার বলেন, ‘প্রত্যেক প্রাইভেট হাসপাতালে একজন করে আবাসিক ডাক্তার থাকার কথা। করোনা পরিস্থিতিতে তারাই রোগী দেখতে পারেন। এক্ষেত্রে যদি কেউ আবাসিক ডাক্তার না রাখেন, তাহলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

সূত্র : কালের কণ্ঠ
এম এন  / ০১ এপ্রিল

গাজীপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে