Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ৫ আগস্ট, ২০২০ , ২১ শ্রাবণ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৪-১৮-২০২০

চাল কম দিয়ে বলা হলো ‘যা পাইছ তা নিয়ে যাও’

চাল কম দিয়ে বলা হলো ‘যা পাইছ তা নিয়ে যাও’

পিরোজপুর, ১৮ এপ্রিল- ‘যা পাইছ তা নিয়ে যাও। করোনার ত্রাণে পায় ৫ কেজি চাল, ভিজিডির ৩০ কেজিতে ৫ কেজি কম হলে কি হবে?’ পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে চাল কম দেওয়ায় ভুক্তভোগীরা প্রতিবাদ করলে তাদের ধমক দিয়ে কথাগুলো বলছিলেন ভিজিডির চাল বিতরণে দায়িত্বরত চৌকিদার স্বপন ও আ. কাদের।

স্থানীয়দের অভিযোগ, সরকার প্রতিমাসে ভিজিডি তালিকাভুক্ত অসহায় মহিলাদের ৩০ কেজি চাল প্যাকেট করে দিলেও ইউনিয়ন পরিষদ থেকে বিতরণের সময় বস্তা খুলে চাল রেখে দিয়েছে পাড়েরহাট ইউনিয়ন পরিষদ। 

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার উপজেলার পাড়েরহাট ইউনিয়ন পরিষদের গোডাউন থেকে ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্রের সহায়ক খায়রুল ও চৌকিদার স্বপন ৫ জন সুবিধাভোগী কার্ডধারীকে দুই বস্তা করে দশবস্তা চাল দেন। প্রতি বস্তায় চার থেকে পাঁচ কেজি করে চাল কম দেওয়া হয়। চাল কম দেখে কার্ডধারী উপজেলার গাজীপুর গ্রামের রিপা, জেসমিন বেগম, হোসনেয়ারা  বকুল বেগম প্রতিবাদ করলে তাদের চৌকিদার স্বপন ও কাদের বলেন, ‘করোনার ত্রাণে পায় মাত্র ৫ কেজি চাল, এখন ৫ কেজি কম নিলে কি হবে। যা পাইছ নিয়ে চলে যাও।’ 

ভুক্তভোগী গাজীপুর গ্রামের রীপা আকতার বলেন, প্রতিবার আমাদের চাল কম দেওয়া হয়। প্রতিবাদ করলে  চৌকীদার স্বপন ও কাদের বলে ‘যা পাইছো তা নিয়া যাও। ৫ কেজি কম পাইলে কি হবে?’ 

এ বিষয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. গোলাম সরোয়ার বাবুল বলেন, গাজীপুর এলাকার সাময়িক বরখাস্তকৃত ইউপি সদস্য ইলিয়াছ হোসেন আমাকে হেয় করার জন্য তার এলাকার মহিলাদের বস্তা থেকে চাল খুলে রেখে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ট্যাগ অফিসারের উপস্থিতিতে চাল বিতরণ করা হয়। তবে বস্তা ছেঁড়া থাকলে দুই /এক কেজি চাল কম হতে পারে।

গাজীপুর ওয়ার্ডের সাময়িক বরখাস্তকৃত ইউপি সদস্য মোঃ ইলিয়াছ হোসেন বলেন, চেয়ারম্যানের সঙ্গে আমার কোন বিরোধ নেই। এলাকাবাসী চাল মেপে কম পাওয়ায় আমাকে ডাকেন। পরে আমার সামনে চাল মাপে প্রতি বস্তায় পাঁচ থেকে ছয় কেজি কম পাওয়া যায়। আমি ইউনিয়ন পরিষদে ফোন করলেও কেউ রিসিভ করেননি। চেয়ারম্যান আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এনেছেন তা ভিত্তিহীন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মুহাম্মদ আল মুজাহিদ জানান, কাউকে চাল কম দিলে সঙ্গে সঙ্গে বিতরণ স্থানে প্রতিবাদ করতে হবে। তাহলে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বাড়িতে গিয়ে কেউ অভিযোগ করলে তা ভিত্তিহীন বলে মনে হবে।

সূত্র : সমকাল
এম এন  / ১৮ এপ্রিল

পিরোজপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে