Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই, ২০২০ , ২৫ আষাঢ় ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৫-২৮-২০২০

স্কুলের পাশে 'মৃত্যুকূপ'

স্কুলের পাশে 'মৃত্যুকূপ'

শেরপুর, ২৮ মে- প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে স্কুলের রাস্তাসহ পাশের জমির মাটি খনন করে মৃত্যুকূপ করেছে স্থানীয় একটি পক্ষ। এতে গর্ত করা হয়েছে প্রায় ২০ ফুট। গত ৫ হতে ৭ দিনে ভেকু দিয়ে এই গর্ত করায় চরম আতঙ্কে রয়েছেন স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবক ও পাশের মসজিদে আসা মুসল্লিসহ স্থানীয় বাসিন্দারা।

এ ঘটনাটি ঘটেছে শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার গড়জরিপা ইউনিয়নের গড়জরিপা পূর্বপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাস্তা ও পাশের জমিতে। ওই গর্তে পড়ে যে কোনো সময় শিশুসহ যে কোনো বযসের লোকের প্রাণহানী ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তারা। বুধবার সরেজমিন গেলে দেখা যায় ওই স্কুলের পাশে মৃত্যু কূপের এ চিত্র।

জানা যায়, গড়জরিপা পূর্বপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয়েছে ১৯৮৭ সালে। সেখানে নির্মাণ হয় একটি পাকা ভবন। এই ভবনে চলে ছাত্রছাত্রীদের পাঠদান। এই স্কুলের উত্তর পাশেই রয়েছে একটি মসজিদ ও গড়জরিপা হতে শেরপুর আসার সড়ক। স্কুল সংলগ্ন উত্তর পাশে ২০ শতাংশ জমি নিয়ে স্থানীয় খলিলুর রহমান বিএসসি ও আলহাজ্ব মো. খলিলুর রহমান ফকিরের দ্বন্দ্ব চলছে। এ ব্যাপারে কোর্টে মামলাও হয়েছে।

এ সময় করোনাভাইরাসের প্রভাব ও ঈদের কারণে স্কুল বন্ধ ছিল। এ ছাড়াও প্রশাসন ত্রাণ বিতরণসহ নানা কার্যক্রমে ব্যস্ত। এই সুযোগে বিরোধ পূর্ণ ওই জমিতে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে আলহাজ্ব মো. খলিলুর রহমান ফকির সম্প্রতি ভেকু দিয়ে মাটি খনন করে মৃত্যুকূপ তৈরি করেছেন। এতে স্কুলের ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক, অভিভাবকসহ স্থানীয় কয়েকটি বাড়ির লোকজনের চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে পড়েছে। তাদের চলাচল করতে হচ্ছে কয়েকটি বাড়ি ঘুরে বিকল্প পথে। ওই মৃত্যুকূপের কারণে স্কুলের ছাত্রছাত্রীসহ যে কেউ মৃত্যু কূপে পড়ে প্রাণহানীর ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। 

এ ব্যাপারে খলিলুর রহমান বিএসসি বলেন, এটা আমার মায়ের জমি। তারা জবর দখল করেছে। এমনকি আমাদের বিরুদ্ধে কোর্টে মামলাও করেছিল। ওই মামলায় আমাদের পক্ষে রায় হয়েছে। এখন হেরে যাওয়ার ভয়ে ওই জমির মাটি খনন করে মৃত্যুকূপ তৈরি করেছে। 

তবে এ ব্যাপারে আলহাজ্ব মো. খলিলুর রহমানের পক্ষ থেকে কেউ কোনো মন্তব্য না করলেও ওই মৃত্যুকূপে মাটি ভরাট করার কথা বলেছে। এমনকি ওই জমি তাদের বলেও তারা দাবি করেছে। 

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গড়জরিপা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমি দ্রুত মাটি ভরাট করে গর্ত পূরণ করতে বলেছি। 

তবে উপজেলা শিক্ষা অফিসার জিয়াউল হক বলেন, আমি পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিব।

সূত্র: কালের কণ্ঠ

আর/০৮:১৪/২৮ মে

শেরপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে