Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ৫ আগস্ট, ২০২০ , ২১ শ্রাবণ ১৪২৭

গড় রেটিং: 2.0/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৬-০৬-২০২০

নোয়াখালীতে করোনায় আক্রান্ত পুলিশের সংখ্যা ৫০ ছাড়ালো

নোয়াখালীতে করোনায় আক্রান্ত পুলিশের সংখ্যা ৫০ ছাড়ালো

নোয়াখালী, ০৬ জুন- নোয়াখালীতে নতুন করে আরও ৯ জন পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে শুক্রবার পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত পুলিশের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫২ জনে।

নোয়াখালী জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের করোনা ফোকাল পার্সন ও জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক জ্যোতি খীসা তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, জেলায় প্রায় ১৪শ জন পুলিশ সদস্য রয়েছেন। এদের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫২ জন। আক্রান্ত পুলিশ সদস্যরা জেলার বিভিন্ন থানা ও পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত রয়েছেন।

তিনি আরও জানান, শুক্রবার পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ্ হয়েছেন ৬ জন। এদেরকে নোয়াখালী পুলিশ লাইনস হাসপাতালে অবজারভেশনে রাখা হয়েছে। বাকীরা হোম আইসোলেশন ও নোয়াখালীর কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা গেছে, আক্রান্ত পুলিশদের মধ্যে সুধারাম মডেল থানাধীন সোনাপুর পুলিশ ফাঁড়িতে সর্বোচ্চ সংখ্যক পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এখানে ২ জন পুলিশ পরিদর্শক সহ আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ জনে পৌঁছেছে। আক্রান্তের দিক দিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে বেগমগঞ্জ থানা। এখানে ১৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে চৌমুহনী পুলিশ ফাঁড়ি। এখানে আক্রান্তের হয়েছেন ১১ জন। চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ (ওসি) ৪ জন পুলিশ কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। বেগমগঞ্জ সার্কেল কার্যালয়ের ৩ জন, কবিরহাট থানায় ১ জন ও পুলিশের বিশেষ শাখা (ডিএসবি) সিভিল পুলিশে ১ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুনুর রশিদ চৌধুরী জানান, বেগমগঞ্জে ১৫ জন পুলিশ সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এতে অন্য পুলিশ সদস্যদের মাঝে করোনা আতঙ্ক বিরাজ করছে। আক্রান্তদেরকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, গত ২৩ মে থেকে ৬ জুন পর্যন্ত বেগমগঞ্জের চৌমুহনী শহরে কঠোর লকডাউন (অঘোষিত কারফিউ) ঘোষনা করেন জেলা প্রশাসন। এ লকডাউন বাস্তবায়ন করতে চৌমুহনী পুলিশ ফাঁড়ি ও বেগমগঞ্জ থানা পুলিশ রাত দিন পরিশ্রম করে যাচ্ছে।  তার ভাষায়, লকডাউন শিথিলের পর এখানে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি  করোনা আক্রান্ত পুলিশের সংখ্যা আরও বহুগুন বেড়ে যেতে পারে।

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. নবির হোসেন বলেন, পুলিশ, দেশ জাতির জন্য কাজ করতে গিয়ে প্রতিনিয়তই জীবনের ঝুঁকি নিচ্ছে। যার প্রমাণ সোনাপুর পুলিশ ফাঁড়ির ১৭ পুলিশ করোনায় আক্রান্ত হওয়া।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার মো. আলমগী হোসেন বলেন, যেখানে মানুষের সমাগম সেখানেই সার্বক্ষনিকভাবে পুলিশ কাজ করছে। কোথাও লকডাউন কার্যকর করতে, কোথাও করোনায় আক্রান্ত মৃত ব্যক্তিদের দাফন করতে এবং কোথাও আবার আক্রান্তদের হাসপাতালে ভর্তি করতেও পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি জানান, আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের নিয়মিত খোঁজ খবর নিচ্ছেন। তাদের খাবার, চিকিৎসা ও অন্যান্য বিষয়ে নজর রাখছেন।  তিনি আরও জানান, অসুস্থ পুলিশ সদস্যদের ওপর নজরদারি বাড়াতে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক জ্যোতি খীসার নেতৃত্বে ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি মনিটরিং সেল গঠন করা হয়েছে। 

পুলিশের ওই কর্মকর্তা বলেন, অসুস্থ পুলিশ সদস্যদের আর্থিক সহযোগিতা করার জন্য পুলিশ হেড কোয়াটারে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

সূত্র : সমকাল
এম এন  / ০৬ জুন

নোয়াখালী

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে