Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০২০ , ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৬-১৩-২০২০

নাসিমের মৃত্যু নিয়ে ব্যঙ্গাত্মক পোস্ট দিয়ে ক্ষমা চেয়েছেন শিক্ষিকা

নাসিমের মৃত্যু নিয়ে ব্যঙ্গাত্মক পোস্ট দিয়ে ক্ষমা চেয়েছেন শিক্ষিকা

রংপুর, ১৪ জুন - আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যু নিয়ে ফেসবুকে ব্যঙ্গাত্মক পোস্ট দিয়েছেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) বাংলা বিভাগের প্রভাষক সিরাজাম মনিরা। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

এরই মধ্যে স্থানীয় ও বিশ্ববিদ্যালয় আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এ অবস্থায় ওই পোস্ট ‍মুছে ফেলেন ওই শিক্ষিকা। কিন্তু ততক্ষণে পোস্টের স্ক্রিনশট ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে সমালোচনার ঝড় ওঠে। সেই সঙ্গে শিক্ষিকার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা।

ফেসবুকে আরেকটি পোস্ট দিয়ে আগের পোস্টের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন প্রভাষক সিরাজাম মনিরা। সেই সঙ্গে এমন পোস্টের জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখিত ও অনুতপ্ত হয়েছেন তিনি।

শনিবার (১৩ জুন) লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম মারা যান। তার মৃত্যু নিয়ে ওই শিক্ষিকা ‘যোগ্য নেতৃত্বে দেশ নাসিম্যা মুক্ত হল’ লিখে পোস্ট দেন।

কিছুক্ষণের মধ্যে বিষয়টি সবার নজরে এলে পোস্টটি মুছে দেন তিনি। কিন্তু ততক্ষণে পোস্টের স্ক্রিনশট ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ, বঙ্গবন্ধু পরিষদসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ পাল্টা স্ট্যাটাস দিয়ে শিক্ষিকার শাস্তি চেয়েছেন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ শাখার সভাপতি আবু মোন্নাফ আল কিবরিয়া তুষার বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করার সময় ওই শিক্ষিকা বাম রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ওই সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সরকারের বিরুদ্ধে বক্তব্য দিতেন তিনি। একজন বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদের মৃত্যুতে সারা দেশ যখন শোকাহত; তখন তার এমন পোস্ট আমাদের ব্যথিত করেছে। এমন ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ পাওয়ার আগে থেকে ক্যাম্পাসে সরকারবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত ছিলেন ওই শিক্ষিকা। তবুও কিভাবে তিনি শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পেলেন আমরা বুঝতেছি না।

এদিকে এ ঘটনায় করা মামলায় ওই শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মুহিব্বুল ইসলাম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আবু হেনা মোস্তফা কামালের দায়ের করা মামলায় ওই শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রেজিস্ট্রার আবু হেনা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে এ মামলা করেছেন। এই মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হবে।

মতামত জানতে শনিবার রাতে প্রভাষক সিরাজাম মনিরার মুঠোফোন নম্বরে যোগাযোগ করা হলে ফোন রিসিভ করেননি। তবে এ ঘটনায় ক্ষমা চেয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন তিনি।

পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘একজন সিনিয়র রাজনীতিবিদের মৃত্যু সম্পর্কে ভিন্নভাবে অভিমত ব্যক্ত করা ঠিক নয়। কর্মফল যাই হোক না কেন; মৃত্যু সবসময় বেদনাদায়ক ও মর্মান্তিক। এটি অনুধাবনের পরপরই আমি আমার বক্তব্য থেকে সরে এসেছি। সেই সঙ্গে আমার আগের দেয়া পোস্ট সরিয়ে নিয়েছি। তারপরও যারা আমার পোস্টে আঘাত পেয়েছেন; তাদের কাছে আমি আন্তরিকভাবে ক্ষমাপ্রার্থী।’

এদিকে, সন্ধ্যায় প্রভাষক সিরাজাম মনিরাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আবু হেনা মোস্তফা কামাল।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১৪ জুন

রংপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে