Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ৬ জুলাই, ২০২০ , ২১ আষাঢ় ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৬-২৭-২০২০

ফেসবুকে আসছে বিশেষ ট্যাগ, রুখবে ঘৃণা ছড়ানো পোস্ট

ফেসবুকে আসছে বিশেষ ট্যাগ, রুখবে ঘৃণা ছড়ানো পোস্ট

সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘৃণা ছড়ানো বা হিংসামূলক তৎপরতা রুখতে নতুন ব্যবস্থা নিতে শুরু করছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। খানিকটা টুইটারের ধাঁচেই ট্যাগ বসিয়ে সতর্ক করার ব্যবস্থা করছে ফেসবুক। গতকাল শুক্রবার ফেসবুকের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতাতা মার্ক জুকারবার্গ এ কথা জানিয়েছেন। পাঠযোগ্য পোস্টও যদি প্ল্যাটফর্মের নিয়ম ভাঙে তাহলে ব্যবহারকারীকে সতর্ক করা হবে। তার জন্য বিশেষ কিছু ট্যাগ ব্যবহার করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

আমেরিকায় বর্ণবাদের বিরুদ্ধে তীব্র হচ্ছে আন্দোলন। একাধিক বড় সংস্থা সোশ্যাল মিডিয়া থেকে তাদের বিজ্ঞাপন সরিয়ে নিচ্ছে। অ্যাঙ্গলো-ডাচ সংস্থা ইউনিলিভারের পর কোকাকোলাও সিদ্ধান্ত নিয়েছে ৩০ দিনের জন্যই বিজ্ঞাপন বন্ধ রাখবে। তারপরই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফেসবুক।

জুকারবার্গ জানিয়েছেন, বর্ণবাদ, জাতিবাদ, সাম্প্রদায়িক, শারীরিক বা যৌন হেনস্তামূলক, লিঙ্গ বৈষম্যমূলক বিষয়বস্তু রয়েছে এমন যেকোনো কিছুর রুখতে নতুন এই পদ্ধতি কার্যকর হবে। এমনকি উদ্বাস্তুদেরও যাতে কোনো রকমের ঘৃণার শিকার না হতে হয় সে ব্যাপারেও ভূমিকা নেবে ফেসবুকের নতুন নীতি।

ফেসবুক ব্যবহারকারীরা পোস্ট করতে পারবেন, কিন্তু শেয়ার করার সময় তাদের জানান দেওয়া হবে যে তার পোস্ট করা ছবি, টেক্সট বা ভিডিওতে ফেসবুকের নিয়ম লঙ্ঘন করার শব্দ বাক্য বা বিষয়বস্তু রয়েছ। বাকিরাও তা দেখতে পাবেন। বিশেষ কিছু ট্যাগ ব্যবহার করা হবে যা দিয়ে এই ধরনের পোস্ট চিহ্নিত করা হবে।

জুকারবার্গ আরো বলেন, প্রত্যেক বছর বিলিয়ন ডলার খরচ করা হয় এই ধরনের স্পর্শকাতর বিষয়গুলো রুখতে। এই নীতি পর্যালোচনা করে.নতুন কী কী আরো যুক্ত করা যায় সে ব্যাপারে বিশেষজ্ঞরাও পরামর্শ দিচ্ছেন। সেই অনুযায়ী নতুন ট্যাগ বসিয়ে লেবেল করার পদক্ষেপ করা হচ্ছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড হত্যার পর থেকেই বর্ণ বৈষম্যের বিরুদ্ধে উত্তাল আন্দোলন চলছে। আমেরিকার সীমানা ছাড়িয়ে সেই আন্দোলন দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছে দেশে দেশে। তারপর সোশ্যাল মিডিয়াতেও ক্রমশ জোরালো হচ্ছে সেই স্বর। রাস্তার আন্দোলন আছড়ে পড়েছেন ডিজিটাল দুনিয়াতেও। এর মধ্যেই দেখা গেছে, ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি তাদের ব্র্যান্ডের নাম থেকে ফেয়ার শব্দটি বাদ দিয়ে দিয়েছে। স্বয়ং ডোনাল্ড ট্রাম্পের টুইট মুছে দিয়েছে টুইটার কর্তৃপক্ষ। এই পরিস্থিতিতে নতুন পদক্ষেপ করতে চলেছে ফেসবুক।

সূত্র: দ্য ওয়াল
এম এন  / ২৭ জুন

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে