Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ৯ আগস্ট, ২০২০ , ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৬-২৭-২০২০

চেয়ারম্যান করোনা আক্রান্ত, নিয়মিত সাক্ষাতে এলাকাবাসী

চেয়ারম্যান করোনা আক্রান্ত, নিয়মিত সাক্ষাতে এলাকাবাসী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ২৭ জুন- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. রাফি উদ্দিন করোনা আক্রান্ত। বাড়িতে হোম আইসোলেশনে থাকলেও পুরোপুরি নিয়ম মেনে চলছেন না। 

তথ্য গোপন রেখেই মানুষের সংস্পর্শে আসছেন এবং প্রতিদিনই তার বাড়িতে আসা স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে বিভিন্ন কাজকর্ম নিয়ে আলোচনা করছেন। ফলে সংক্রমণ ঝুঁকি রয়েছে অনেকেরই।

স্থানীয় লোকজন জানান, করোনা আক্রান্ত হয়ে যদি আইসোলেশন নিয়ম না মানেন তাহলে তার সংস্পর্শে এসে অনেকেই করোনা আক্রান্ত হতে পারেন। নিয়ম মানার পরে পরবর্তী রিপোর্ট নেগেটিভ না আসা পর্যন্ত পুরোপুরি নিয়ম মানা উচিত। 

সরেজমিন রাফি উদ্দিনের বাড়ির আঙিনার দূর থেকে ঘণ্টাব্যাপী অবস্থান করে দেখা গেছে, খালি শরীরে ঘরের দরজার সামনে বসে আছেন তিনি। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে লোকজন এসে তার সঙ্গে কথা বলছেন। দু,চারজন করে প্রায় ১৫/২০ জন বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে কথা বলছেন। করোনা রোগী থেকে যে শারীরিক দূরত্ব মানার কথা তাও মানা হচ্ছে না।

গোয়ালনগর ইউনিয়ন থেকে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আসা হাজী সেলিম উদ্দিন নামে এক ব্যক্তি বলেন, আমার এলাকায় এক লোকের সঙ্গে টাকার লেনদেন নিয়ে সমস্যা চলছিল। তাই চেয়ারম্যান সাহেবের কাছে আসছি বিষয়টি সমাধানের জন্য। এ সময় ওই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসা করা হয় চেয়ারম্যান তো করোনা আক্রান্ত তাহলে আপনার কেন আসছেন। এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তিনি এখন পুরোপুরি সুস্থ। করোনা আক্রান্ত হলেও এখন ভাল হয়ে গেছেন। তবে নতুন করে তিনি আক্রান্ত সেটি আমার জানা ছিল না।

কথা হয় মোক্তার হোসেন নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে। তিনি বলেন, আমার গ্রামের একটি স্কুলের সীমানা প্রাচীর নিয়ে ঝামেলা চলছে। তাই এ বিষয় নিয়ে কথা বলতে এসেছি।

সায়েব আলী নামে এক লোক বলেন, অন্য একজনের কাজে চেয়ারম্যানের বাড়িতে এসেছি। তবে চেয়ারম্যান করোনা আক্রান্ত কি না তা জানিনা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উপজেলা আওয়ামী লীগের এক নেতা বলেন, চেয়ারম্যানের দুইবার করোনা ফলাফল পজিটিভ এসেছে। তারপরও তার বাড়িতে প্রতিদিনই লোকজন আসছে। 

রাফি উদ্দিন জানান, আগের চেয়ে তিনি অনেক সুস্থ আছেন। তবে নতুন করে আবার করোনা আক্রান্ত কিনা সে বিষয়ে নিশ্চিত নন। শারীরিক দূরত্ব মেনেই চলছেন বলে তিনি দাবি করেন। 

নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমা আশরাফী বলেন, চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রী করোনা পজিটিভ। ওনাকে নিয়ম মানার জন্য বলা হয়েছে। চেয়ারম্যান করোনা পজিটিভ হওয়ার পর থেকেই আমিও দাপ্তরিক কাজ কমিয়ে দিয়েছি। প্রতিদিন মাত্র দুই ঘণ্টা অফিসে অবস্থান করছি।

সূত্র: বাংলানিউজ

আর/০৮:১৪/২৭ জুন

ব্রাক্ষ্রণবাড়িয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে