Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ , ১৩ আশ্বিন ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.1/5 (19 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-২৩-২০২০

ট্রানজিটের মধ্য দিয়ে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন আসবে: ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী

ট্রানজিটের মধ্য দিয়ে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন আসবে: ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী

আগরতলা, ২৩ জুলাই- প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের চট্টগ্রাম নৌবন্দর ব্যবহার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে পরীক্ষামূলক ট্রানজিটের পণ্য ভারতে নেওয়া হয়েছে। সেটি গ্রহণ করেন ত্রিপুরা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) সকালে আগরতলা ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্ট এলাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি পণ্য গ্রহণ করেন।

পরে সেখানে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বলেন, 'আজকের এই ঐতিহাসিক দিনে ত্রিপুরাবাসীর পক্ষ থেকে বাংলাদেশকে অনেক ধন্যবাদ জানাই।'

এসময় তিনি ত্রিপুরা রাজ্যের অতীত ইতিহাস তুলে ধরে বলেন, 'একসময় ত্রিপুরা রাজ্যের জন্য শুধু একটি মাত্র রাস্তা ছিল। গত ১২ বছর ধরে বর্ষার মৌসুম এলে প্রায় দুই মাস রাস্তা বন্ধ থাকতো। এতে করে আমাদের এখানে দ্রব্যমূল্যের দাম আগুন ছোঁয়া হয়ে যেত। গত দুই বছরের ব্যবধানে ত্রিপুরার অনেক পরির্বতন হয়েছে। এখন শুধু একটি রাস্তা নয়, স্থলবন্দর, রাস্তা ও রেল যোগাযোগ দুটাই সম্পন্ন হয়েছে। অন্যদিকে জলপথে তিনটি পথ খুলছে। চট্টগ্রাম বন্দর থেকে আজ যে কন্টেইনার এসেছে, সেটি হলদিয়া বন্দর থেকে চার শত কিলোমিটার জলপথ এবং চট্টগ্রাম বন্দর থেকে দুই শত কিলোমিটার স্থলপথ হয়ে এসেছে। এতে করে একদিকে খুলে গেছে আগরতলা আইসিপির প্রবেশ দ্বার। অন্যদিকে ডিসেম্বরে যখন ফেনী নদীর ব্রিজের কাজ শেষ হয়ে যাবে, তখন চট্টগ্রাম বন্দর থেকে মাত্র ৬০ কিলোমিটার পথের ব্যবধানে নৌ-পথ খুলে যাবে।'

আরও পড়ুন : যত দিন বাঁচব আমি ও আমার দলই ক্ষমতায় থাকবে, ফের বিতর্কে বিপ্লব!

তিনি বলেন, 'আগে হলদিয়া থেকে আমাদের এখানে পণ্য আসতো ১৬শ কিলোমিটার পথ হয়ে। আর এখন জল ও স্থলপথে ৬শ কিলোমিটার লাগছে। এতে করে প্রতি মেট্রিকটন পণ্য আগে যেখানে ৬ হাজার ৩শ টাকা করে খরচ হতো। এখন তা ৫ হাজার ৮শ টাকা করে ত্রিপুরায় পৌঁছে গেছে। এতে করে প্রতি মেট্রিকটনে ৫শ টাকা করে খরচ কমে গেছে। এর মাধ্যমে পুরো ত্রিপুরার আমূল পরিবর্তন আসবে।'

দুই দেশের অর্থনীতিতে কোনও পরিবর্তন আসবে কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বলেন, 'আজকের দিনে ত্রিপুরা থেকে এক্সপোর্ট হচ্ছে ৩০ কোটি টাকা। বাংলাদেশের হয়েছে ৬৪৫ কোটি টাকা। আর আমরা হিসাব করে দেখেছি, আগামী এক বছরে মধ্যে ত্রিপুরা এক্সপোর্ট করবে চারশ কোটি টাকা। আর বাংলাদেশেরটা হয়ে যাবে দুই হাজার কোটি টাকা। আগামী ৫ বছরে বাংলাদেশের এক্সপোর্ট দাঁড়াবে চার হাজার দুইশ কোটি টাকা আর ত্রিপুরার ১২শ কোটি টাকা। দুই দেশের অর্থনীতিকে আমূল পরিবর্তন আসবে।'

আর/০৮:১৪/২৩ জুলাই

ত্রিপুরা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে