Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ , ১২ আশ্বিন ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-২৬-২০২০

লঘুচাপের প্রভাবে বিভিন্ন অঞ্চলে ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টি

লঘুচাপের প্রভাবে বিভিন্ন অঞ্চলে ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টি

ঢাকা, ২৬ আগস্ট- উত্তর বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি এখন সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়েছে। এ কারণে সাগর উত্তাল। এর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ঝড়ো হাওয়া বইছে। কোথাও কোথাও ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে বৃষ্টিও হচ্ছে। বিশেষ করে দক্ষিণাঞ্চলের আবহাওয়া হঠাৎ করেই খারাপ হয়ে গেছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। সাগরে তিন এবং নদীতে দুই নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ বজলুর রহমান জানান, সাগরে লঘুচাপটি সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়েছে। ফলে সারাদেশেই ঝড়ো হাওয়া বইছে। বিশেষ করে দক্ষিণাঞ্চলে। লঘুচাপটি মূলত ভারতের উড়িষ্যা দিয়ে যেতে পারে। এখন উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। 

আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, লঘুচাপের প্রভাব এবং সাগরে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বিশেষ করে দক্ষিণাঞ্চলে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হচ্ছে।  ফলে সাগরে তিন এবং নদীতে দুই নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং আশেপাশের এলাকায় সুস্পষ্ট লঘুচাপটি উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। মৌসুমি বায়ুর অক্ষ রাজস্থান, সুস্পষ্ট লঘুচাপের কেন্দ্রস্থল বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও রাজস্থান হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত হয়েছে। এর বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর সক্রিয় ও উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় বিরাজ করছে।

পূর্বাভাসে বলা হয়, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়, ঢাকা, সিলেট ও  ময়মনসিংহ, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী বা অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

এদিকে আবহাওয়ার এক সতর্কবার্তায় বলা হয়, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং আশেপাশের এলাকায় সুস্পষ্ট লঘুচাপটি উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগরে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় এবং সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি হয়েছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও এর আশেপাশের উপকূলীয় এলাকার ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া হয়ে যেতে পারে। এজন্য চট্টগ্রাম, মোংলা, কক্সবাজার ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে মাছ ধরার নৌকা, ট্রলারগুলোকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। 

একই কারণে উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী, পটুয়াখালী, বরগুনা, ভোলা, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি বাগেরহাট,  খুলনা, সাতক্ষীরা ও তাদের আশেপাশের দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চলে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ১ থেকে ২ ফুট বেশি উচ্চতার জোয়ার হতে পারে।

আরও পড়ুন- আমাজনের এক চা চামচ মাটিতে হাজার প্রাণ!

বুধবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত নদীবন্দরের পূর্বাভাসে বলা হয়, রাজশাহী, রংপুর, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল,  ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর,  যশোর,  কুষ্টিয়া,  খুলনা,  বরিশাল, পটুয়াখালী,  নোয়াখালী,  কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট অঞ্চলগুলোর ওপর দিয়ে দক্ষিণ ও দক্ষিণ পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরকে দুই নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়। এছাড়া দেশের অন্য এলাকায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরকে এক নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন
এমএ/ ২৬ আগস্ট

পরিবেশ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে