Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ , ১২ আশ্বিন ১৪২৭

গড় রেটিং: 2.7/5 (64 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-০৫-২০১৪

আমাদের জীবনধারার কেন্দ্রে অভিবাসীরা: ওবামা

আমাদের জীবনধারার কেন্দ্রে অভিবাসীরা: ওবামা

নিউইয়র্ক, ০৫ জুলাই- কংগ্রেসকে পাশ কাটিয়ে নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে অভিবাসন সমস্যা সমাধানের পুনরায় ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বরাক ওবামা। একই সঙ্গে অভিবাসনকে যুক্তরাষ্ট্রের জীবনধারার কেন্দ্রবিন্দু উল্লেখ করেছেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার হোয়াইট হাউসে কতিপয় সেনাসদস্য ও তাঁদের পরিবারের নাগরিকত্ব-প্রাপ্তি অনুষ্ঠানে (ন্যাচারালাইজেশন) এ কথা বলেন ওবামা।

ওই অনুষ্ঠানে ওবামা বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসনব্যবস্থা চৌকস ও অধিকতর কার্যকর করার লক্ষ্যে আমি আমার প্রয়াস অব্যাহত রাখব।’

অভিবাসনকে যুক্তরাষ্ট্রের আত্মপরিচয়ের কেন্দ্রবিন্দু উল্লেখ করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমাদের ভূখণ্ডে অভিবাসীদের স্বাগত জানানোর মৌলিক ধারণাটি আমাদের জীবনধারার কেন্দ্র রয়েছে। এটা আমাদের ডিএনএর মধ্যে আছে।’
ওবামা বলেন, ‘সেরা লোকজনকে আকৃষ্ট করতে হলে ভেঙে পড়া অভিবাসন সমস্যার সমাধান করতেই হবে।’

যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন আইনের সংস্কার নিয়ে ওবামা এবং রিপাবলিকান দল এখন মুখোমুখি অবস্থানে। রিপাবলিকান-নিয়ন্ত্রিত কংগ্রেসের স্পিকার জন বয়েনার জানান, চলতি বছরের মধ্যে অভিবাসন সংস্কার নিয়ে কোনো আইন-প্রস্তাব গ্রহণের সম্ভাবনা নেই।

সিনেট ডেমোক্র্যাট সংখ্যাগরিষ্ঠ। কিন্তু কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ, প্রতিনিধি পরিষদ এখন রিপাবলিকানদের নিয়ন্ত্রণে। এ কারণে বাজেট বরাদ্দ থেকে শুরু করে যেকোনো আইন প্রণয়নে প্রেসিডেন্ট ওবামাকে চরম বৈরিতার মুখোমুখি হতে হচ্ছে।

জনদাবি প্রবল হলেও রিপাবলিকানরা অভিবাসন সংস্কার আইন প্রণয়নে অনেকটাই অনিচ্ছুক। বিষয়টির সমাধানে ব্যাপক আলোচনা ও একাধিকবার সমঝোতার উদ্যোগ নেওয়া হলেও রক্ষণশীলদের বিরোধিতায় তা বারবার ব্যর্থ হচ্ছে।

রিপাবলিকানদের মতে, অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করা লোকজনকে বৈধতা প্রদানের কোনো যৌক্তিকতা নেই। আইনের লঙ্ঘন উত্সাহিত করে অভিবাসীদের বৈধতা দেয়ার বিপক্ষে রক্ষণশীলরা।

গত কয়েক মাস ধরে মেক্সিকো সীমান্ত দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাপক লোকজনের অনুপ্রবেশ ঘটেছে। অপ্রাপ্ত বয়স্ক ও অভিভাবকহীন অনুপ্রবেশকারী শিশুদের নিয়ে বিপাকে পড়েছে মার্কিন অভিবাসন কর্তৃপক্ষ।

নতুন নতুন আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে টেক্সাসের সীমান্তবর্তী শহরগুলোতে। এসব আশ্রয়কেন্দ্র সামাল দেওয়ার জন্য অর্থ বরাদ্দও আটকা পড়েছে কংগ্রেসে। স্পিকার জন বয়েনার গত সপ্তাহে বলেছেন, এ বছরের মধ্যে কংগ্রেসে অভিবাসন সংস্কার নিয়ে আলোচনারই কোনো সম্ভাবনা নেই।

প্রেসিডেন্ট ওবামা তাঁর নির্বাহী ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন বলেও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বয়েনার। প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে নির্বাহী ক্ষমতা অপব্যবহারের মামলা করার জন্য আইন প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি। রিপাবলিকান আইনপ্রণেতাদের দেওয়া চিঠিতে স্পিকার বলেন, সংবিধানে দেওয়া নির্বাহী ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন ওবামা। ক্ষমতার অপব্যবহার চ্যালেঞ্জ করার জন্য নতুন করে আইন প্রস্তাব গ্রহণ করতে আইনপ্রণেতাদের তাগিদ দিয়েছেন তিনি।

ওবামা এর মধ্যেই নির্বাহী বিভাগকে অভিবাসন সংস্কার নিয়ে সক্রিয় হওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন। নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের বিস্তারিত তথ্য হোয়াইট হাউস থেকে এখনো প্রকাশ করা হয়নি।

অভিবাসী গ্রুপ এবং নাগরিক অধিকার সংগঠনগুলো প্রেসিডেন্টের দৃঢ় অবস্থানে আশাবাদী হয়ে উঠলেও সংশয় কাটছে না।

চরম রাজনৈতিক বৈরিতা সামাল দিয়ে অভিবাসন সমস্যার সমাধানে ওবামা কতটা সফল হবেন, তা দেখার অপেক্ষায় যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসী ও উদারনৈতিক মহল।

উত্তর আমেরিকা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে