Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর, ২০২০ , ১৬ আশ্বিন ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.1/5 (110 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১০-২৬-২০১৫

ভিয়েনায় দুর্গাপূজা

আনিসুল হক


ভিয়েনায় দুর্গাপূজা

ভিয়েনা, ২৬ অক্টোবর- বাঙালি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা ও আনন্দ-উৎসবের আমেজে অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় উদ্‌যাপিত হয়েছে। বাঙালি-অস্ট্রিয়ান হিন্দু কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে ভিয়েনার ফ্লবেলগাসে অস্থায়ী পূজামণ্ডপ তৈরি করা হয়।

১৮ অক্টোবর রোববার বোধনের মাধ্যমে শুরু হয়ে ২২ অক্টোবর বৃহস্পতিবার প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে পাঁচ দিনব্যাপী পূজা অনুষ্ঠান শেষ হয়। ২২ অক্টোবর দুপুর ১২টায় ফ্লবেলগাসে থেকে বিজয়া শোভাযাত্রার মাধ্যমে ভিয়েনার মিলোনিয়াম সিটি ও হেন্ডেলসস্কাই হয়ে ঐতিহ্যবাহী দানিউব নদীতে প্রতিমা বিসর্জন দেওয়া হয়।
অস্ট্রিয়াপ্রবাসী বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, মিয়ানমারের বিপুলসংখ্যক ভক্ত পূজামণ্ডপে দেবীর দশমী পূজা, দর্শন, বিসর্জন ও শান্তিজল গ্রহণে আসেন। দেবী দর্শনে আসা ভক্তদের মূল আকাঙ্ক্ষা ছিল জগতে মানুষে মানুষে শান্তি ও প্রাণীকুলের মঙ্গল কামনা।

বাঙালি-অস্ট্রিয়ান হিন্দু কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দের আমন্ত্রণে ১৯ অক্টোবর সন্ধ্যায় পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করেন আন্তর্জাতিক প্রেস ইনস্টিটিউটের (আইপিআই) নির্বাহী পরিষদের ভাইস চেয়ার, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি ও এটিএন বাংলা টিভির প্রধান সম্পাদক মনজুরুল আহসান বুলবুল, অস্ট্রিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. আবু জাফর, অস্ট্রিয়াপ্রবাসী মানবাধিকার কর্মী, লেখক, সাংবাদিক এম নজরুল ইসলাম, কমিউনিটি নেতা খন্দকার হাফিজুর রহমান, সাইফুল ইসলাম, বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সিলর শাবাব বিন আহমেদ ও অনারারি কাউন্সিলর কমার এরনস্ট গ্রাফট প্রমুখ।

পূজা অনুষ্ঠানে সকলকে শারদীয় শুভেচ্ছা জানিয়ে মনজুরুল আহসান বুলবুল বলেন, ধর্ম যার যার, উৎসব সবার। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে প্রতিটি উৎসবই ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে আমরা এক সঙ্গে উদ্‌যাপন করি। ভিয়েনায় আপনাদের এত সুন্দর আয়োজন প্রশংসার দাবি রাখে।

পূজা অনুষ্ঠানটির সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন সোনারিয়া, অনুপম সাহা, রুহি দাস সাহা, প্রতাপ কুমার মণ্ডল, রতন সাহা ও তপন দাস। বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেন বিষ্ণু দাস, শ্যামল রায়, বিতু মন্ডল ও মানিক চন্দ্র চৌধুরী প্রমুখ।

পূজায় পুরোহিতের দায়িত্বে ছিলেন সুইডেনপ্রবাসী বিষ্ণু চক্রবর্তী। পুরোহিতকে কয়েকজন পূজার কাজে সহযোগিতা করেন।
উল্লেখ্য ভিয়েনার ফ্লবেলগাসে ছাড়াও লামগাসে ও ডোনাও ইনজিলে অস্থায়ী মণ্ডপে পূজা অর্চনা হয়।

অন্যান্য

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে