Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ৫ জুলাই, ২০২০ , ২১ আষাঢ় ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.8/5 (4 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৬-০৩-২০১২

১০ জুন নিয়ে ভাবছে না আওয়ামী লীগ

১০ জুন নিয়ে ভাবছে না আওয়ামী লীগ
তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনঃবহালের দাবিতে ১০ জুন ডেটলাইন বেধে দিয়েছে বিএনপি। দাবি আদায় না হলে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির হুঁশিয়ারিও দিয়েছে দলটি। তবে বিএনপি নেতাদের তর্জন, গর্জন এবং হুঁশিয়ারিকে আমলে নিচ্ছে না শাসক দল আওয়ামী লীগ। তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থার স্পষ্ট বিরোধিতা করে অন্তবর্তীকালীন সরকারের রূপরেখা নিয়ে ভাবছে শাসক দলটি।

রোববার দুপুরে রাজধানীর এলজিইডি ভবনে এক অনুষ্ঠান শেষে আওয়ামী লীগের মুখপাত্র সৈয়দ আশরাফ বিএনপির ডেটলাইনের খবর জানেন না উল্লেখ করে সাংবাদিকদের বলেন, ‘‘এ বিষয়ে আমার কাছে কোনো ইনফরমেশন নাই। না জেনে এ বিষয়ে মন্তব্য করা ঠিক হবে না।’’

রোববার এক অনুষ্ঠানে সরকারের প্রতি কড়া হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া বলেছেন, “১০ জুনের মধ্যে তত্ত্বাবধায়ক সরকারব্যবস্থা পুনর্বহাল না হলে ১১ তারিখের পর থেকে আন্দোলন কত প্রকার ও কি কি তা বুঝিয়ে দেয়া হবে।”

আওয়ামী লীগের যুগ্ম  সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন বার্তা২৪ ডটনেটকে বলেন, ‘‘বিএনপির কর্মসূচি নিয়ে আমাদের কোনো মাথাব্যথা নেই।’’

তিনি বলেন, ‘‘রাজনৈতিক দল হিসেবে তারা তাদের মতো কর্মসূচি দিতে পারে। কিন্তু সরকারি দল হিসেবে আমরা দেশের উন্নয়নে কাজ করে চলেছি।’’

দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ বার্তা২৪ ডটনেট’র কাছে বিএনপির ডেটলাইনের বিষয়টি নিয়ে ঠাট্টা করে বলেন, ‘‘আমি তো তাদের ডেটলাইনের ভয়ে আগে ভাগেই ঢাকা ছেড়ে আমার এলাকায় চলে এসেছি।’’

তিনি বলেন, ‘‘কয়েকটি পত্রিকা তো দেখি বিএনপির এই ডেটলাইন নিয়ে কাউন্টডাউন শুরু করে দিয়েছেন। আর মাত্র কয়দিন বাকি এই নিয়ে নানান লেখালেখি চলছে।’’

তবে বিরোধী দল দেশের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিঘ্নিত করার চেষ্টা করলে তাদেরকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করা হবে বলেও জানালেন কাজী জাফরউল্লাহ।

আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ে কথা বলে জানা যায়, দলটি এখন ভাবছে আগামী নির্বাচনে সময়কার অন্তবর্তীকালীন সরকারের রূপরেখা নিয়ে। নির্বাচনের সময় নির্বাচন কমিশনকে কিভাবে আরো শক্তিশালী করা যায়, কিভাবে শরীক দলগুলোকে খুশি রেখে অন্তবর্তীকালীন সরকার গঠন করা যায় এ নিয়ে চলছে কার্যক্রম।

এছাড়াও আগামী নির্বাচনের প্রস্ত্ততি নিতেও শুরু করেছে শাসক দল আওয়ামী লীগ। ২০১৪ সালের নির্বাচনে মরিয়া দলটি ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির মাধ্যমে নিজেদের অভ্যন্তরীণ কাজ গুছিয়ে নিচ্ছেন।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর সংস্থাপনবিষয়ক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম এবং সাবেক সংস্থাপন সচিব রাশিদুল আলম দায়িত্ব অনুযায়ী প্রাথমিক কাজ শুরু করেছেন। ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে নিয়মিত অফিসও করছেন কমিটির  সদস্যরা। গত এপ্রিলের শুরুর দিন থেকে কমিটি আবারো পুনরায় অ্যাক্টিভেট করেন শেখ হাসিনা।

এছাড়াও ১৪ দলের শরীক নেতারা জানায়, আগামী নির্বাচনে আবারো ঐক্যবদ্ধভাবে নির্বাচনে অংশ নিতে জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ে ১৪ দলকে সংগঠিত করার কাজ শুরু হয়েছে।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা তার অবস্থান স্পষ্ট করেছেন একাধিকবার। তিনি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলকে দুঃশাসন আর নির্যাতনের সময় বলে নিয়মিত বক্তব্য দিচ্ছেন। তত্ত্বাবধায়ককে দানব হিসেবেও উল্লেখ করেছেন তিনি । তাই আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা বলছেন, বিএনপি যাই বলুক না কেন, তত্ত্বাবধায়কে ফেরার কোনো সুযোগ নেই।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে